মেয়ে পটানোর লাভ লেটার

যারা মেয়ে পটানোর লাভ লেটার বা প্রেমপত্র দেওয়ার জন্য ভাবছেন আমাদের আজকের এই আর্টিকেলটি তাদের জন্য । এখানে কিভাবে আপনি আপনার প্রিয়জনকে লাভ লেটার দিয়ে ইম্প্রেস করবেন ? কিভাবে সুন্দর করে গুছিয়ে প্রিয়জনকে একটি প্রেমপত্র লিখে পাঠাবেন?

 

সে বিষয়ে মেয়ে পটানোর লাভ লেটার অথবা প্রিয়জনকে লাভ লেটার দেওয়ার অত্যন্ত দারুন ৫টি লাভ লেটার আপনাদের সাথে শেয়ার করছি। আশাকরি লাভ লেটারগুলো আপনাদের ভালো লাগবে।

 

তাহলে চলুন দেখে নেয়া যাক মেয়ে পটানোর লাভ লেটার গুলো:

 

১/ মেয়ে পটানোর লাভ লেটার :

 

আমার প্রিয়তমা,

 

আমি তোমাকে অনেক বেশি ভালোবাসি। কেন জানি তোমার সাথে দেখা হওয়ার পর থেকে প্রতিনিয়ত তোমার কথা আমার মনে পড়ে।  প্রতিটা সময় প্রতিটা মুহূর্ত শুধু তোমার ভাবনায় বিভোর থাকি। এমন কোন দিন নেই যে তুমি আমার ভাবনায় আসোনি। তুমিহীনা আমি একটি মুহূর্ত কাটাতে পারি না। 

তোমাকে আমার জীবনে আমার করে না পেলে সত্যিই অনেক কষ্ট পাবো। তোমাকে যেদিন প্রথম দেখি সেদিন থেকে তোমার মায়াভরা ওই অদ্ভুত সুন্দর দুচোখ খুব মনে পড়ে। আমার প্রতিটি ক্ষণে প্রতিটি মুহূর্তে, প্রতিটি কাজে শুধু তুমি আর তুমি। 

তুমি শুনলে অবাক হবে যেদিন তোমার ওই মায়া ভরা দুচোখ দেখেছি বিশ্বাস করো সেদিন থেকেই তোমার ওই মায়া ভরা দুই চোখের প্রেমে পড়ে গেছি। সেদিন থেকে আজ পর্যন্ত তোমার কথা স্মরণ করা ছাড়া থাকতে পারি না। 

হয়তো তুমি আমাকে পাগল বলে সম্বোধন করবে। আসলেই বলতেই পারো, কারণ আমি তোমার প্রেমে পাগল পারা হয়েছি। আমার এই জীবনে যদি তোমাকে আমার অর্ধাঙ্গিনী হিসেবে না পায় তাহলে সত্যি সত্যি পাগল হয়ে যাব। 

আমার এই চিঠিখানা শুধু  সাদা কাগজ ভেবে ফেলে দিও না। আমার এই চিঠির ভেতরে সব ভালবাসা প্রকাশ করে লিখলাম । আমার জন্য তোমার ভালোবাসার মায়া দিয়ে বুকের মধ্যে ঠাই দিও । আমাকে আপন মানুষ ভেবে বুকে টেনে নিও।

 

ইতি তোমার ভালোবাসা পাওয়ার পাগল ” আপনার নাম ”

তারিখ…….

 

২/ মেয়ে পটানোর লাভ লেটার বা মেয়ে পটানোর চিঠি

মেয়ে পটানোর চিঠি
মেয়ে পটানোর চিঠি

 

আমার প্রিয় প্রিয়তমা,

 

আমার গভীর ভালবাসার পক্ষ থেকে তোমাকে জানাই একগাদা লাল গোলাপের শুভেচ্ছা । আশা করি তুমি অনেক ভালো আছো। আল্লাহর রহমতে আমিও অনেক ভালো আছি। জীবনে এই প্রথম বারের মত আমার মনের কথাগুলো লিখে পাঠাচ্ছি তোমাকে। 

লেখা কিভাবে শুরু করব বুঝতে পারছি না আমার সব এলোমেলো হয়ে যাচ্ছে। সত্যিই আমি অনেক খুশি তোমার মত একজন জীবন সঙ্গিনী পেয়ে। সত্যি বলতে যেদিন থেকে আমি তোমাকে দেখেছি সেদিন থেকে মনের অজান্তে তোমাকে অনেক ভালবেসে ফেলেছি। 

আমি কখনো ভাবতেই পারিনি যে এইভাবে কাউকে এত বেশি ভালোবাসা যায়। আমার জীবনের প্রতিটি ক্ষণ প্রতিটি মুহূর্ত প্রতিটি সময়ে শুধু তোমার ওই মায়াবী চেহারা মনে পড়ে। তোমাকে ভুলে থাকা আসলে অসম্ভব হবে আমার জন্য। 

হৃদয়ের সবটুকু ভালবাসা উজাড় করে তোমাকে আজীবন আগলে রাখতে চাই। আমি তোমাকে কথা দিচ্ছি জীবনে যত বিপদ-আপদ, ঝড় আসুক না কেন তোমার ওই দুই হাত জীবনেও ছাড়বো না। 

তাই তুমি আমাকে বিশ্বাস করতে পারো আমি তোমার ওই বিশ্বাসের মূল্য দিব। তাই আমি আশা রাখি তুমি আমার উপর বিশ্বাস রাখবে এবং আমার হাত ধরে চিরদিন পাশে থাকবে। লেখতে গেলে দিন শেষ হবে তবুও লেখা শেষ হবে না।  তাই এখন বিদায় নিচ্ছি ও একটি কথা তোমার চিঠি অপেক্ষায় রইলাম ধন্যবাদ।

 

ইতি তোমার……”নাম”

তারিখ…….

 

৩/ মেয়ে পটানোর লাভ লেটার –  Romantic Love Letter Bangla

 

প্রিয় সুহাসিনী,

 

আমার পক্ষ থেকে একগুচ্ছ গোলাপের শুভেচ্ছা নিও। আশা করি তুমি ভালো আছো । আমিও অনেক ভালো আছি। অনেকদিন পর আমার মনের কথাগুলো তোমার কাছে পাঠানোর জন্য চিঠি লিখতে বসেছি। কিভাবে লেখা শুরু করব নিজেও বুঝতে পারছিনা। একটি বিষয় খেয়াল করেছো ? হয়তোবা করেছ তোমাকে চিঠি শুরুতে প্রিয় সুহাসিনী বলে সম্মোধন করেছি। 

তুমি হয়তো বলতে পারো সুহাসিনী কেন বলেছি? সুহাসিনী বলার অনেক কারণ রয়েছে। যেদিন তোমাকে প্রথম দেখেছি সেদিন তুমি হয়তো কোন একটা কারণে হেসেছিলে। সত্যি বলতে ওই দিন তোমার হাসি এত অদ্ভুত সুন্দর লেগেছিল যে সেই থেকে তোমার হাসির প্রেমে পড়েছি। 

আমার প্রতিটি ক্ষণে,প্রতিটি মুহূর্ত প্রতিটি কাজের মাঝেও ভাবনার মধ্যে শুধু তোমার সেই ভয়ঙ্কর রকম সুন্দর  হাসির দৃশ্যটিভেসে ওঠে। আমার দিনে কতবার যে তোমার ওই অদ্ভুত সুন্দর হাসি মাখা মুখখানা দেখতে ইচ্ছে করে তার কোন হিসেব নেই। 

আমার জীবনের সব সুখ যেন তোমার ওই হাসি ভেতর। যত দুঃখ -কষ্ট, বিষন্নতা আসুক না কেন আমি জানি তোমার ওই হাসি মাখা মুখখানা দেখলে আমার সব দুঃখ-কষ্ট, বেদনা ও বিষণ্নতা নিমিষেই শেষ হয়ে যাবে। 

এই চিঠিখানা পড়ে তুমি হয়তো আমাকে পাগল বলেও সম্বোধন করতে পারো। বলতে পারো একটি মানুষ কিভাবে এতটা পাগল হতে পারে একটি মেয়ের জন্য। সত্যিই আমি তোমাকে অনেক বেশি ভালোবাসি এবং জীবনের শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করা পর্যন্ত তোমার ওই দুই হাত ধরে কাটাতে চাই। 

সুখে দুঃখে প্রতিটি সময় তোমার পাশে থাকতে চাই। তুমি কি আমাকে তোমার পাশে থাকতে দিবে? তুমি কি আমাকে তোমার সুখে দুখের সাথী হিসেবে পাশে রাখবে?

তোমার উত্তরের অপেক্ষায় রইলাম।

 

ইতি তোমার……..”নাম”

 

তারিখ……..

 

৪/ মেয়ে পটানোর লাভ লেটার

 

প্রিয়তমা,

 

আমার পক্ষ হতে এক আকাশ ভালোবাসা শুভেচ্ছা জানাই তোমাকে। কেমন আছো প্রিয়সি ? আশা করি অনেক বেশি ভালো আছো। আমি আল্লাহর রহমতে ভালো আছি। অনেকদিন যাবত ভাবছি তোমার জন্য একটি চিঠি লিখবো। যে চিঠিতে তোমাকে না বলা শত কথা লিখব আর আমার মনের কথাগুলো তোমাকে সুন্দর করে গুছিয়ে লেখার সামান্য চেষ্টা করব। 

ভাবতেই অনেক আনন্দ লাগে যে আমি তোমার জন্য চিঠি লিখছি। তবে কিভাবে লেখা শুরু করব বুঝতে পারছি না। যেদিন তোমাকে প্রথম দেখি সেদিন থেকেই আমি তোমার প্রেমে পড়েছি। সেদিন তোমার মায়াবী চেহারা আমাকে বেশ মুগ্ধ করেছে। সেদিনের পর থেকে আমার জীবনের প্রতিটি মুহূর্তে, সকাল-সন্ধ্যায় শুধু তোমার ভাবনায় কেটে যায়। 

তোমার ঐ মায়াবী চেহারা আমার চোখের সামনে ভেসে উঠে। তোমাকে যতই দেখি ততই বেশি দেখতে মন চায়। জীবনে হয়তো সকল দুঃখ-কষ্ট সহ্য করতে পারবো। কিন্তু তোমাকে যদি আমার করে না পাই তাহলে এই দুঃখ সহ্য করার মত শক্তি আমার থাকবে না। 

তুমি আমার প্রথম এবং শেষ ভালোবাসা। জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত তোমার পাশে থাকতে চাই। তোমার হাতে হাত রেখে জীবনের পথ চলা শেষ করতে চাই। 

তুমি কি আমাকে তোমার জীবনের পথ চলার সাথী হিসেবে পাশে রাখবে? তুমি কি আমাকে তোমার সুখে দুঃখের সাথী হিসেবে পাশে রাখবে?

আর সময় নষ্ট করব না। এই চিঠিখানা সাদা কাগজ ভেবে বাইরে ফেলে দিও না । আমার এই চিঠির উত্তরের অপেক্ষায় রইলাম।

 

 ইতি তোমার……….”নাম”

 

৫/ মেয়ে পটানোর লাভ লেটার

মেয়ে পটানোর মিষ্টি কথার প্রেমপত্র ও লেটার
মেয়ে পটানোর মিষ্টি কথার প্রেমপত্র ও লেটার

প্রিয় মায়াবী,

 

প্রিয় মায়াবী একগাদা বেলি ফুলের শুভেচ্ছা নাও। আশা করি তুমি অনেক ভালো আছো। আমিও ভালো আছি । আজকের দিনটি আমার জন্য অত্যন্ত আনন্দের একটি দিন। কারণ আজকে আমি আমার প্রিয় মানুষটির জন্য একটি চিঠি লিখতে বসেছি। 

কিভাবে লিখা শুরু করবো কিছুই বুঝতে পারছিনা সব এলোমেলো হয়ে যাচ্ছে। হয়তো অনেক বেশি এক্সাইটেড সেজন্য। তোমার সাথে যেদিন প্রথম দেখা হয়েছিল সেই দিনের কথা আজও আমার অনেক বেশি মনে পড়ে। 

ঐদিন তোমার মায়াবী চেহারা, ও মায়াবী চোখ দুটো আমাকে বেশ মুগ্ধ করেছে। ওই দিনের পর থেকে আজ পর্যন্ত তোমার মায়াবী চেহারা প্রতিনিয়ত আমার ভাবনাতে আসে । প্রতিটি মুহূর্তে, প্রতিটি সময়ে তোমাকে না ভেবে থাকতে পারিনা। 

আমার সকল ভাবনা জুড়ে শুধু তুমি।এই জীবনে তোমাকে আমার করে পেলে আমার এই জীবন ধন্য হবে। জগতের সবচেয়ে সুখী মানুষ হয়তো আমিই হব। 

জীবনের সবটুকু ভালোবাসা দিয়ে তোমাকে আগলে রাখতে চাই। চাই জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত তুমি আমার পাশে থাকো।

তুমি কি আমার পাশে থাকবে জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত? তুমি কি আমাকে তোমার ভালোবাসা দিয়ে আগলে রাখবে? তোমার সুখে দুঃখের সাথী হিসেবে আমাকে পাশে রাখবে?

 

 তোমার চিঠির উত্তরের অপেক্ষায় রইলাম:

 

  ইতি তোমার……”নাম”

 

পরিশেষে 

 

আমাদের আজকের  “ মেয়ে পটানোর লাভ লেটার “ আর্টিকেলটি ভালো লাগলে বা আপনার উপকারে আসলে অবশ্যই তা কমেন্ট করে জানাবেন । এবং নিয়মিত ইন্টারেস্টিং লেখা ও গল্প পড়তে আমাদের সাইটের উপর চোখ রাখুন এবং ফলো করুন আমাদের ফেসবুকে

 

আরো পড়ুন : 

মেয়েদের জন্য ১২টি সেরা ব্যবসার আইডিয়া ।

ছাত্রদের জন্য পার্ট টাইম চাকরি বিস্তারিত পড়ুন ।

বিয়ের বায়োডাটা লেখার নিয়ম ।

 

By Saifur Rahman Arif

আমি মোহাম্মাদ সাইফুর রহমান আরিফ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন ব্যবস্থাপনা বিভাগের ছাত্র । ব্যবস্থাপনার একজন ছাত্র হলেও বর্তমানে কিছুদিন যাবৎ আমি অনলাইনে লিখালিখি কাজের সাথে যুক্ত রয়েছি । এবং Goafta.com সাইটটির একজন আর্টিকেল রাইটার হিসাবে কাজ করছি ।

One thought on “৫টি সেরা মেয়ে পটানোর লাভ লেটার – Best Love Letter Bangla [ 2023 ]”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *